শনির বুকে বিলীন হলো ক্যাসিনি

শনির বুকে বিলীন হলো ক্যাসিনি মিশন
ক্যাসিনি মহাকাশযান ১৯৯৭ সালের ১৫ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেপ ক্যানেভেরাল থেকে উড়ে গিয়েছিল। ২০০৪ সালে এটি শনি গ্রহের কক্ষপথে প্রবেশ করে। এরপর সফলভাবে ১৩ বছর শনি ও এর উপগ্রহগুলোকে পর্যবেক্ষণ করেছে ক্যাসিনি। দীর্ঘ ২০ বছরের মহাকাশ‌যাত্রায় জ্বালানি ফুরিয়ে এসেছিল ক্যাসিনির। ফলে মাহাকাশ‌যানটির ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবনায় পড়েন নাসার বিজ্ঞানীরা। অবশেষে ক্যাসিনিকে শনির বুকেই ধ্বংস করে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। গত বছর ২৯ নভেম্বর ক্যাসিনিকে অন্তিম কক্ষে স্থাপনের প্রক্রিয়া শুরু করে নাসা। চলতি বছরের ২২ এপ্রিল শেষবার টাইটানের পাশ দিয়ে উড়ে ‌যায় ক্যাসিনি। ঢুকে পড়ে অন্তিম কক্ষে। সেই কক্ষে ঘুরতে ঘুরতেই শুক্রবার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যে ছয়টা নাগাদ শনির বুকে আছড়ে পড়ল মহাকাশযানটি।
যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা নাসা, ইউরোপীয় মহাকাশ সংস্থা ইসা এবং ইতালির মহাকাশ সংস্থার বিজ্ঞানীরা একযোগে শনি গ্রহের রহস্য উন্মোচন করার জন্য ক্যাসিনি মিশন পরিচালিত হয়।
ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির (ইএসএ) বানানো ‘ল্যান্ডার’ মহাকাশযান ‘হাইগেন্স’-এর হাত ধরে নাসার ‘অরবিটার’ মহাকাশযান ‘ক্যাসিনি’ শনির বহু দূরের কক্ষপথে ঢুকে পড়েছিল ১৩ বছর আগে। ২০০৫ সালের ১৪ জানুয়ারি নিজের শরীরের অংশ ছিঁড়ে ‘ল্যান্ডার’ মহাকাশযান ‘হাইগেন্স’কে শনির চাঁদ ‘টাইটান’-এ নামিয়ে দিয়েছিল ‘ক্যাসিনি’। ২০০৪ সালের পয়লা জুলাই। ‘ক্যাসিনি-হাইগেন্স’-এর আগে আরও তিন-তিনটি মহাকাশযান শনির পাশ কাটিয়ে ঘুরেও বেরিয়ে গিয়েছিল।

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ খ্রি.


এ বিভাগের আরো খবর...
শনিগ্রহের চারটি নতুন তথ্য শনিগ্রহের চারটি নতুন তথ্য
নিউ হরাইজন মহাকাশযান তার পরবর্তী লক্ষ্যের ছবি পৃথিবীতে পাঠিয়েছে নিউ হরাইজন মহাকাশযান তার পরবর্তী লক্ষ্যের ছবি পৃথিবীতে পাঠিয়েছে
চাদের উৎপত্তি বিষয়ে আরও বিস্তারিত নতুন তথ্য চাদের উৎপত্তি বিষয়ে আরও বিস্তারিত নতুন তথ্য
বৃহস্পতিগ্রহের রঙ্গীন ডোরাকাটা বায়ুপ্রবাহের রহস্যের মূলে কি এর চৌম্বকক্ষেত্র? বৃহস্পতিগ্রহের রঙ্গীন ডোরাকাটা বায়ুপ্রবাহের রহস্যের মূলে কি এর চৌম্বকক্ষেত্র?
সূর্যকে স্পর্শ করতে যাত্রা করল নাসা’র পার্কার সূর্যকে স্পর্শ করতে যাত্রা করল নাসা’র পার্কার
মঙ্গল গ্রহে তরল পানির হ্রদ মঙ্গল গ্রহে তরল পানির হ্রদ
সূর্যের পথে পাড়ি জমাবে পার্কার সৌর প্রোব সূর্যের পথে পাড়ি জমাবে পার্কার সৌর প্রোব
এনসেলাডাসের উপপৃষ্ঠের সমুদ্র থেকে জটিল জৈবিক পদার্থ উদগত হচ্ছে এনসেলাডাসের উপপৃষ্ঠের সমুদ্র থেকে জটিল জৈবিক পদার্থ উদগত হচ্ছে
মঙ্গল গ্রহে মৌসুম ভেদে মিথেন এর পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে মঙ্গল গ্রহে মৌসুম ভেদে মিথেন এর পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে
মঙ্গল গ্রহে প্রাণের অস্তিত্ব! মঙ্গল গ্রহে প্রাণের অস্তিত্ব!

শনির বুকে বিলীন হলো ক্যাসিনি
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet