১১৫ পারমানবিক ভরের নতুন মৌল আবিস্কার

১১৫ পারমানবিক ভরের নতুন মৌল আবিস্কার১১৫ পারমানবিক ভরের নতুন একটি মৌল আবিস্কৃত হয়েছে। প্রাথমিকভাবে একে আনানপেন্টিয়াম নামকরণ করা হয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল কেমিস্ট্রি নেমিং রুলস জানায় এটি প্রাকৃতিক কোনো মৌল নয়, ৯৩ থেকে ১১৮ পরমানবিক ভরের মৌলগুলোর মতো কৃত্রিম প্রক্রিয়ায় তৈরি করা। পার্টিকেল অ্যাক্সিলেটরে সৃষ্টি এ মৌলটি দৃশ্যমান হওয়ার ১ সেকেন্ডেরও কম সময়ের মধ্যে মিলিয়ে যায়। ‘ফিজিক্যাল রিভিউ লেটার্স’ বিজ্ঞান জার্নালে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়।
বিজ্ঞানীরা এটি মিলিয়ে যাওয়ার পূর্বেই রেখে অবিন্যস্ত কণাগুলো শনাক্ত করতে সক্ষম হন এবং মৌলটির ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র্র কণাগুলোকে বিপরীত প্রক্রিয়ায় পুনর্গঠন করে নতুন মৌলটির অস্তিত্ব সম্পর্কে নিশ্চিত হন। ২০০৪ সালে রাশিয়ান এবং আমেরিকান একটি গবেষকদল প্রথমবার এই মৌলটি সৃষ্টি করেন কিন্তু অপর্যাপ্ত প্রমানের কারণে নতুন মৌল হিসেবে এর ঘোষণা দিতে ব্যর্থ হন। সর্বশেষ সুইডেনের লান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালিত পরীক্ষায় এর অস্তিত্ব নিশ্চিত হওয়া যায় এবং বিজ্ঞানীরা পর্যায় সারণীতে এর অন্তর্ভূক্তির বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সম্পাদনা: এলিনা বাড়ৈ
৩০ আগস্ট, ২০১৩
সূত্র: ফিজিক্যাল রিভিউ লেটার্স

 


এ বিভাগের আরো খবর...
১১৭ তম অতি ভারী মৌলের সন্ধান ১১৭ তম অতি ভারী মৌলের সন্ধান
১৯ টি মৌলের পারমাণবিক ভর পুনঃনির্ধারণ ১৯ টি মৌলের পারমাণবিক ভর পুনঃনির্ধারণ

১১৫ পারমানবিক ভরের নতুন মৌল আবিস্কার
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)