পাই (π) দিবস

পাই (π) দিবসসারা বিশ্বে গণিতবিদগণ ১৪ মার্চকে পাই (π) দিবস হিসেবে পালন করে থাকেন। সাধারণত আমরা পাইয়ের মান হিসেবে ৩.১৪ ধরে থাকি। এই সংখ্যাটি থেকেই বছরের ৩য় মাসের ১৪ তারিখকে পাই দিবস হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছে। পদার্থবিদ ল্যারি শ’ ১৯৮৮ সালে পাই দিবস এর ধারণার প্রবর্তন করেন। পরবর্তীতে ২০০৯ সালে ১২ মার্চ যুক্তরাষ্ট্র সরকার ১৪ মার্চকে জাতীয় পাই দিবস হিসেবে পালনের অনুমোদন দেন।
π একটি গাণিতিক ধ্রুবক। এর দ্বারা যেকোন বৃত্তের পরিধি ও ব্যাসের অনুপাতকে প্রকাশ করা হয়। তবে একইভাবে এটি বৃত্তের ক্ষেত্রফলের সঙ্গে এর ব্যাসার্ধের বর্গের অনুপাতের সমান। বর্তমানে কম্পিউটারের সাহায্যে π এর মান দশমিকের পর ১ ট্রিলিয়ন পর্যন্ত বের করা সম্ভব হয়েছে। π একটি অমূলদ সংখ্যা অর্থাৎ একে দুইটি পূর্ণসংখ্যার অনুপাত হিসেবে প্রকাশ করা যায় না। এটিকে কোন বহুপদী সমীকরণের মূল হিসাবেও গণনা করা যায় না। দশমিকের পরে এর মান কখনো শেষ হয় না এবং এটি পুনরাবৃত্তি করে না।
উইলিয়াম জোনস সর্বপ্রথম ১৭০৬ সালে সর্বপ্রথম π প্রতীকটি ব্যবহার করেন, যদিও ১৭৩৭ সালে সুইডিশ গণিতবিদ লিওনার্দো অয়লার কর্তৃক ব্যবহারের পর এটি বিশেষ জনপ্রিয়তা পায়।
π গ্রিক বর্ণমালার ষোলোতম বর্ণ। গ্রিক শব্দ ‘περιφέρεια’ (যার অর্থ periphery) এবং ‘περίμετρος’(যার অর্থ perimeter) এর প্রথম বর্ণ হচ্ছে π। ধরা হয়ে থাকে পরিধি বা perimeter শব্দটি থেকেই π এর ব্যবহার হয়ে আসছে।


এ বিভাগের আরো খবর...
নিখুঁত সংখ্যা’র দিন নিখুঁত সংখ্যা’র দিন

পাই (π) দিবস
(সংবাদটি ভালো লাগলে কিংবা গুরুত্ত্বপূর্ণ মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।)
tweet